1. admin@ekattortribune.com : admin :
  2. ekattortribune2020@gmail.com : Ekattor Tribune : Ekattor Tribune
রোজায় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা: করণীয় ও বর্জনীয় - একাত্তর ট্রিবিউন
বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০২:৩৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
আজ জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী কুষ্টিয়ার সাবেক জাতীয় ফুটবলার আকরামের চিকিৎসা মানবিক সহায়তায় এগিয়ে আসুন কুষ্টিয়ার এসপি’র ব্যক্তিগত উদ্যোগে দুই শতাধিক পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী উপহার নাঙ্গলকোটে বিএনপি’র দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সাংবাদিক আহত পঞ্চগড় জেলায় মাদ্রাসার এতিম ছাত্রদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ মিরপুর থানা আকস্মিক পরিদর্শন করেন – এসপি খাইরুল আলম এফবিসিসিআই এর সহ-সভাপতি মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান এম.এ রাজ্জাক খান রাজ দৈনিক আরশীনগর পত্রিকার ঈদ উপহার বীর মুক্তিযোদ্ধা শরফ উদ্দিন টিপুর মৃত্যুতে হানিফ এমপি’র শোক সংবাদ ঈদে কোলাকুলি-হাত মেলানো থেকে বিরত থাকার পরামর্শ সেব্রিনা ফ্লোরার

রোজায় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা: করণীয় ও বর্জনীয়

একাত্তর ট্রিবিউন ডেস্ক
  • সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩২ বার

পবিত্র রমজান মাসের সিয়াম সাধনা করা ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের অন্যতম একটি স্তম্ভ। শর্তসাপেক্ষে প্রাপ্তবয়স্ক সকল নারী পুরুষের ওপর রমজান মাসে রোজা রাখা ফরজ।

প্রতিবছর বিশ্বে প্রায় ১৬০ কোটি মুসলিম রমজান মাসে সিয়াম সাধনা পালন করেন।  বিশ্বের কোথাও ১৬ ঘণ্টা থেকে কোথাও ১৮ ঘণ্টা আবার কোথাও ২১ ঘণ্টা পর্যন্ত রোজা পালন করা হয়।

গ্যাস্ট্রাইটিস এর উপসর্গ

  • পেটের উপরি অংশে ব্যথা হবে।
  • বুক জ্বালাপোড়া করবে।
  • খাবারের আগে-পরে পেট ব্যথা হতে পারে।
  • খাবারের সময় বুকে বাঁধ পড়ার মত অনুভব হবে।
  • ঢেঁকুর আসবে।
  • বমি বমি ভাব থাকবে, এবং খাবারের চাহিদা কমে যাবে।
  • অল্প খাবারেই পেট ভরে গেছে মনে হবে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে একজন সুস্থ মানুষ রোজা রাখলে তার অ্যাসিডিটি হওয়ার কোনও সমস্যা আছে কিনা। যদি এক কথায় আমরা উত্তর দেই তাহলে বলতে হয় যে একজন সুস্থ মানুষ রোজা রাখলে তার অ্যাসিডিটি হওয়ার তেমন কোনও সম্ভাবনা নেই যদি সে ইফতারি ও সেহরিতে নিম্নোক্ত নিয়মগুলো মেনে চলে।

ইফতারির সময় যা করতে হবে :

১. ইফতারিতে অতিরিক্ত তৈলাক্ত খাবার কিংবা তেলে ডুবিয়ে যেইসব খাবার তৈরি করা হয় যথা পেয়াজু, আলুর চপ, বেগুনি,  চিকেন ফ্রাই, জিলাপি ইত্যাদি  যতটুকু সম্ভব পরিহার করতে হবে।

২. একসাথে অনেক বেশি খাবার খেয়ে ফেলা যাবে না। অনেকে ইফতারিতে বসেই খেতে খেতে ইসোফেগাস তথা গলবিল পর্যন্ত খেয়ে ফেলে তা কখনোই করা যাবে না।

৩. ইফতারীতে ইসুপগুলের শরবত, ডাবের পানি, ইত্যাদি খাওয়া যাতে পারে আর শর্করা জাতীয় খাবার যথা খেজুর, পেয়ারা,  ছোলা, সেমাই ইত্যাদি খাওয়া যেতে পারে।

৪. ইফতারি হতে হবে লাইট মিল কিংবা  অল্প পরিমাণ খাবার তারপর মাগরিবের নামাজ পড়ে রাতের খাবার খেয়ে নেয়া ভাল।  সম্ভব হলে তারাবীর নামাজের আগেই খেয়ে নিতে হবে।তাহলে খাবারের পরে কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করে নামাজ পড়তে গেলে নামাজের সময় এক প্রকার ব্যায়াম হয়ে যাবে এবং সেটা খাবার পরিপাকের ক্ষেত্রে সহায়ক সেই সাথে এসিডিটি হবার ঝুঁকি কমে যাবে।

৫. অবশ্যই রোজার মাসে এসিডিটি থেকে বাঁচার জন্য রাতের খাবার কিংবা সেহরি উভয়ক্ষেত্রে শোয়ার ১ ঘন্টা আগে খাবার শেষ করতে হবে এবং খেয়ে অবশ্যই কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করে তারপর ঘুমাতে হবে।অন্যথায় এসিডের ব্যাক ফ্লো হয়ে GERD এর মত রোগ হতে পারে।

৬. টক জাতীয় ফলে যদিও প্রচুর পরিমান ভিটামিন সি থাকে তথাপি টক জাতীয় ফলে সাইট্রিক এসিডও থাকে।  তাই রোজার সময় টক ফল সাবধানতার সাথে খেতে হবে। ভাল হয় রাতের খাবার শেষ করে খেলে।

৭. টমেটো ইফতারির সময় অনেকের প্রিয় খাবার তবে টমেটোতে প্রচুর পরিমান সাইট্রিক এসিড ও ম্যালিক এসিড থাকে এবং এটা পাকস্থলীতে ইরিটেশন করে তাই টমেটো বেশী পরিমাণ না খাওয়াই উত্তম।

৮. ঝাল খাবার পাকস্থলীতে এসিডিটির পরিমান বাড়িয়ে দেয় তাই কাচা মরিচ কিংবা অতিরিক্ত ঝাল খাবার পরিহার করে চলতে হবে।

মেডিসিন নেওয়ার পরেও যদি কারো রোজা রাখতে বেশি কষ্ট হয় অথবা যদি প্রচণ্ড বুকে ব্যথা ওঠে তাহলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে রোজা ভঙ্গ করার অবকাশ রয়েছে।

এসকেএস//

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও খবর পড়ুন

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৭৭৭,৩৯৭
সুস্থ
৭১৮,২৪৯
মৃত্যু
১২,০৪৫
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১৬০,২০৯,২১৭
সুস্থ
৯৬,৩৭১,৯৬৩
মৃত্যু
৩,৩২৮,৮৫৪

নামাজের সময় সূচি

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৮
  • ১১:৫৮
  • ১৬:৩২
  • ১৮:৩৫
  • ১৯:৫৭
  • ৫:১৮

Website Live Visitor

0 3 6 2 2 7

বিজ্ঞাপন

Add-01
Add-512 By 512
©All rights reserved © Ekattortribune.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
English